বাংলা একাডেমি সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ৮ ফেব্রুয়ারি ২০২০

আজ ৭ই ফেব্রুয়ারি ২০২০/২৪শে মাঘ ১৪২৬ শুক্রবার। অমর একুশে গ্রন্থমেলার ৬ষ্ঠ দিন। মেলায় আজ নতুন বই এসেছে ৩০৮টি। মেলায় ছিল আজ শিশুপ্রহর। সকাল ১১:০০টা থেকে বেলা ১:০০টা পর্যন্ত শিশুপ্রহর ঘোষণা করা হয়। মেলা চলে সকাল ১১:০০টা থেকে রাত ৯:০০টা পর্যন্ত।


প্রকাশন তারিখ : 2020-02-07

আজ ৭ই ফেব্রুয়ারি ২০২০/২৪শে মাঘ ১৪২৬ শুক্রবার। অমর একুশে গ্রন্থমেলার ৬ষ্ঠ দিন। মেলায় আজ নতুন বই এসেছে ৩০৮টি। মেলায় ছিল আজ শিশুপ্রহর। সকাল ১১:০০টা থেকে বেলা ১:০০টা পর্যন্ত শিশুপ্রহর ঘোষণা করা হয়। মেলা চলে সকাল ১১:০০টা থেকে রাত ৯:০০টা পর্যন্ত।

শিশু-কিশোর চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা : সকাল ৮:৩০টায় অমর একুশে উদ্যাপনের অংশ হিসেবে শিশু-কিশোর চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা আয়োজন করা হয়। প্রতিযোগিতার উদ্বোধন করেন বরেণ্য চিত্রশিল্পী রফিকুন নবী। শিশু-কিশোর চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা সস্ত্রীক পরিদর্শন করেন বাংলাদেশে নিযুক্ত মার্কিন রাষ্ট্রদূত আর্ল রবার্ট মিলার। চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতায় ক-শাখায় ২৭০, খ-শাখায় ২১৫ এবং গ-শাখায় ৯০ জন; সর্বমোট ৫৭৫জন প্রতিযোগী অংশগ্রহণ করেন। আগামী ২২শে ফেব্রুয়ারি ২০২০ প্রতিযোগিতার বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার প্রদান করা হবে।

বিকেল ৪:০০টা গ্রন্থমেলার মূলমঞ্চে অনুষ্ঠিত হয় সৈয়দ শামসুল হক রচিত বঙ্গবন্ধুর বীরগাথা এবং এর অনুবাদ ইধষষধফ ড়ভ ড়ঁৎ ঐবৎড় : ইধহমধনধহফযঁ শীর্ষক আলোচনা অনুষ্ঠান। প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন কথাসাহিত্যিক ইমদাদুল হক মিলন। আলোচনায় অংশগ্রহণ করেন খায়রুল আলম সবুজ এবং আনিসুল হক। অনুবাদকের বক্তব্য প্রদান করেন সৈয়দ শামসুল হকের মূল গ্রন্থ বঙ্গবন্ধুর বীরগাথা-এর Ballad of our Hero : Bangabandhu শীর্ষক অনুবাদ-গ্রন্থের প্রণেতা ড. ফকরুল আলম। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য এমরান কবির চৌধুরী।

প্রাবন্ধিক বলেন, সৈয়দ শামসুল হক বাংলা সাহিত্যের সব্যসাচী লেখক। তিনি যখন শিশুদের উপযোগী করে বঙ্গবন্ধুর জীবনী লেখেন তখন তা একটি ঘটনা হয়ে দাঁড়ায়। বঙ্গবন্ধুর বীরগাথা এই কারণে একটি বড় ঘটনা। শিশুদের জন্য এরকম জীবনীগ্রন্থ বাংলা ভাষায় বিরল। হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি, আমাদের জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সমগ্র জীবন শিশুদের উপযোগী করে লেখা অত্যন্ত কঠিন কাজ। ভাষার দিকে লক্ষ্য রাখতে হয়, ঘটনা, বর্ণনার দিকে অতিরিক্ত মনোযোগী হতে হয় এবং জীবনকথা তুলে ধরতে হয় এমন একটি আকর্ষণীয় ভঙ্গিমায় যাতে শিশুরা মন্ত্রমুগ্ধের মত সেই বইটি পড়ে। সৈয়দ হক এই কাজটি করেছেন অত্যন্ত নিখুঁতভাবে। সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালির জীবনকথা শিশুদের কাছে অতি মনোরম ভঙ্গিতে তুলে ধরেছেন বাংলা ভাষায় এই বড় লেখক।

আলোচকবৃন্দ বলেন, বাঙালির হাজার বছরের কোনো এক পুণ্য-বলেই বঙ্গবন্ধুর মতো একজন নেতা জন্ম নিয়েছিলেন বাঙালির ঘরে। হতদরিদ্র, নিপীড়িত এক মানবগোষ্ঠীকে একটি জাতি হিসেবে সুপ্রতিষ্ঠিত করার কঠিন কাজটি সম্পন্ন করেছেন বাংলার বীর সন্তান বঙ্গবন্ধু। হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি বঙ্গবন্ধুর জীবনকথা নিয়ে অন্যতম শ্রেষ্ঠ বাঙালি সাহিত্যিক সৈয়দ শামসুল হকের রচিত বঙ্গবন্ধুর বীরগাথা গ্রন্থের মাধ্যমেই শিশু-কিশোরেরা বাঙালি জাতির স্বপ্নদ্রষ্টা বঙ্গবন্ধুকে চিনতে শুরু করবে এবং তাঁর মতো আত্মবিসর্জন ও ত্যাগের মহিমায় দেশের প্রয়োজনে নিজেদের নিবেদিত রাখবে।

গ্রন্থের অনুবাদক বলেন, বাঙালি জাতির মহান নেতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান-এর জীবনকথা অতি আকর্ষণীয় ভঙ্গিতে শিশু-কিশোর পাঠকদের কাছে তুলে ধরেছেন আমাদের সব্যসাচী লেখক সৈয়দ শামসুল হক। এই অসাধারণ গ্রন্থ ইংরেজিতে অনুবাদ করতে পারা আমার জন্য পরম গৌরব ও আনন্দের।

সভাপতির বক্তব্যে এমরান কবির চৌধুরী বলেন, বঙ্গবন্ধুর মতো মহান নেতা হঠাৎ করেই আবিভর্‚ত হন না। দীর্ঘ সময়ের সংগ্রাম, আত্মত্যাগ ও মানুষের প্রতি ভালোবাসাই বঙ্গবন্ধুকে মহান নেতায় পরিণত করেছিল। কালজয়ী সাহিত্যিক সৈয়দ শামসুল হকের বঙ্গবন্ধুর বীরগাথা এবং ফকরুল আলম-কৃত ইংরেজি অনুবাদের মাধ্যমে এদেশের শিশু-কিশোরেরা এই মহান নেতার জীবন ও আদর্শ সম্পর্কে সম্যক অবগত হবে।

কবিকণ্ঠে কবিতা পাঠ করেন কবি হাসান হাফিজ, কবি গোলাম কিবরিয়া পিনু, কবি নুরুন্নাহার শিরীন, কবি রেজাউদ্দিন স্টালিন। আবৃত্তি পরিবেশন করেন আবৃত্তিশিল্পী মাসকুর-এ-সাত্তার কল্লোল, আলোক বসু এবং কাজী বুশরা আহমেদ তিথি। নৃত্য পরিবেশন করেন নৃত্যসংগঠন ‘বুলবুল একাডেমী অব ফাইন আর্টস’ (বাফা)-এর নৃত্যশিল্পীবৃন্দ। সংগীত পরিবেশন করেন আজগর আলীম, নারায়ণ চন্দ্র শীল, শান্তা সরকার, আল মনসুর। যন্ত্রাণুষঙ্গে ছিলেন বেণু চক্রবর্তী (তবলা), নির্মল কুমার দাস (দোতারা), মো. ফায়জুর রহমান (বাঁশি), ডালিম কুমার বড়–য়া (কী-বোর্ড)।

আজ লেখক বলছি অনুষ্ঠানে নিজেদের নতুন বই নিয়ে আলোচনা করেন কুমার চক্রবর্তী, তুষার আব্দুল্লাহ, কাজী রাফি এবং জাহানারা পারভীন।

আগামীকালের অনুষ্ঠানসূচি :
আগামীকাল ৮ই ফেব্রুয়ারি ২০২০/২৫শে মাঘ ১৪২৬ শনিবার। অমর একুশে গ্রন্থমেলার সপ্তম দিন। মেলা চলবে সকাল ১১:০০টা থেকে রাত ৯:০০টা পর্যন্ত। সকাল ১১:০০টা থেকে বেলা ১:০০টা পর্যন্ত গ্রন্থমেলায় থাকবে শিশুপ্রহর। শিশু-কিশোর আবৃত্তি প্রতিযোগিতার প্রাথমিক নির্বাচন : সকাল ১০:০০টায় অমর একুশে উদ্যাপনের অংশ হিসেবে শিশু-কিশোর আবৃত্তি প্রতিযোগিতার প্রাথমিক নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। শিশু-কিশোর সংগীত প্রতিযোগিতার প্রাথমিক নির্বাচন : সকাল ১০:০০টায় অমর একুশে উদ্যাপনের অংশ হিসেবে শিশু-কিশোর সংগীত প্রতিযোগিতার প্রাথমিক নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

বিকেল ৪:০০টা গ্রন্থমেলার মূলমঞ্চে অনুষ্ঠিত হবে এম আবদুল আলীম রচিত বঙ্গবন্ধু ও ভাষা-আন্দোলন শীর্ষক আলোচনা অনুষ্ঠান। প্রবন্ধ উপস্থাপন করবেন অপরেশ বন্দ্যোপাধ্যায়। আলোচনায় অংশগ্রহণ করবেন প্রতিভা মুৎসুদ্দি ও আরমা দত্ত। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করবেন জাতীয় অধ্যাপক রফিকুল ইসলাম।

সন্ধ্যায় রয়েছে কবিকণ্ঠে কবিতাপাঠ, আবৃত্তি এবং সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।

অপরেশ কুমার ব্যানার্জী
পরিচালক
জনসংযোগ, তথ্যপ্রযুক্তি ও প্রশিক্ষণ বিভাগ


Share with :

Facebook Facebook