বাংলা একাডেমি সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ১১ জুন ২০২২

মহাকবি আলাওল, জ্যোতির্বিজ্ঞানী মোহাম্মদ আবদুল জব্বার এবং জননী সাহসিকা সুফিয়া কামাল স্মরণে অনলাইন আলোচনা


প্রকাশন তারিখ : 2022-06-02
বাংলা একাডেমি আজ ১৯ই জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯/২রা জুন ২০২২ বৃহস্পতিবার তিনটি পৃথক অনলাইন আলোচনায় স্মরণ করেছে মহাকবি আলাওল, জ্যোতির্বিজ্ঞানী মোহাম্মদ আবদুল জব্বার এবং জননী সহসিকা সুফিয়া কামালকে। 
 
সকাল ১১:০০টায় মহাকবি আলাওল স্মরণে আলোচনা অনুষ্ঠানে সূচনা বক্তব্য প্রদান করেন একাডেমির মহাপরিচালক কবি মুহম্মদ নূরুল হুদা। আলোচনায় অংশগ্রহণ করেন অধ্যাপক তারেক রেজা এবং ড. সাইমন জাকারিয়া। সম্মানিত অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের যুগ্মসচিব মোঃ ফাহিমুল ইসলাম। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন বাংলা একাডেমির সভাপতি কথাসাহিত্যিক সেলিনা হোসেন। ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন একাডেমির সচিব এ. এইচ. এম. লোকমান। সঞ্চালনা করেন বাংলা একাডেমির পরিচালক (চলতি দায়িত্ব) নূরুন্নাহার খানম।  
 
বেলা ১:৩০টায় জ্যোতির্বিজ্ঞানী মোহাম্মদ আবদুল জব্বার স্মরণে আলোচনা অনুষ্ঠানের সূচনা বক্তব্য প্রদান করেন একাডেমির মহাপরিচালক কবি মুহম্মদ নূরুল হুদা। আলোচনায় অংশগ্রহণ করেন সুব্রত বড়–য়া এবং অধ্যাপক ড. ফারসীম মান্নান মোহাম্মদী। সম্মানিত অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব অসীম কুমার দে। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন বাংলা একাডেমির সভাপতি কথাসাহিত্যিক সেলিনা হোসেন। ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন একাডেমির সচিব এ. এইচ. এম. লোকমান। সঞ্চালনা করেন বাংলা একাডেমির উপপরিচালক (চলতি দায়িত্ব) সাহেদ মন্তাজ।  
 
বিকেল ৩:৩০টায় বরেণ্য কবি, লেখক ও নারী আন্দোলনের পুরোধা বেগম সুফিয়া কামাল স্মরণে আলোচনা অনুষ্ঠানে সূচনা বক্তব্য প্রদান করেন একাডেমির মহাপরিচালক কবি মুহম্মদ নূরুল হুদা। আলোচনায় অংশগ্রহণ করেন নিশাত জাহান রানা এবং ড. তপন বাগচী। সম্মানিত অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের যুগ্মসচিব নাফরিজা শ্যামা। অনুষ্ঠানে সুফিয়া কামালের কবিতা আবৃত্তি পরিবেশন করেন বাচিকশিল্পী মীর বরকত। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন বাংলা একাডেমির সভাপতি কথাসাহিত্যিক সেলিনা হোসেন। ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন একাডেমির সচিব এ. এইচ. এম লোকমান। সঞ্চালনা করেন বাংলা একাডেমির পরিচালক (চলতি দায়িত্ব) নূরুন্নাহার খানম।  
 
গুণীজনদের স্মরণে বক্তারা বলেন, দেশের বিভিন্ন ক্ষেত্রের গুণীজনদের স্মরণ করলে আমরা নিজেরাই সম্মানিত হই। পূর্বজদের পথরেখায় আমরা আলোকিত উত্তরকালের দিকে এগিয়ে চলি। এভাবে অতীত, বর্তমান ও ভবিষ্যতের মধ্যে সেতুবন্ধ রচিত হয় যা সমাজ ও রাষ্ট্রের অগ্রগমনে ইতিবাচক উপাদান যোগ করে চলে। তারা বলেন, মহাকবি আলাওল বাংলা সাহিত্যের অমৃত—সম্পদ; তাঁর রচনায় সাধারণ মানুষের মর্মকথা উদ্ভাসিত হয়েছে অনন্য ব্যঞ্জনায়। জ্যোতির্বিজ্ঞানী মোহাম্মদ আবদুল জব্বারের তারা—পরিচিতি গ্রন্থটি আমাদের বিজ্ঞানসাহিত্যে ঐতিহাসিক সংযোজন; জ্যোতির্বিজ্ঞান—চর্চায় তিনি এক নমস্য নাম। কবি সুফিয়া কামাল কবিতা ও কর্মিতায় এক কোমল—কঠোর নাম। সুফিয়া কামালের কবিতা যেমন মানব—অনুভবের কোমল মহাদেশকে স্পর্শ করে তেমনি তার নারী আন্দোলন, কুসংস্কার—বিরোধী অবস্থান এবং মানবমুক্তির আবাহন কঠোর সত্যের বার্তাবহ। 
 
 
মোহাম্মদ আকবর হোসেন  
উপপরিচালক (চলতি দায়িত্ব)

Share with :

Facebook Facebook