বাংলা একাডেমি সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২২

আজ ১৩ই ফাল্গুন ১৪২৮/২৬শে ফেব্রুয়ারি ২০২২ শনিবার। অমর একুশে বইমেলার ১২তম দিন।


প্রকাশন তারিখ : 2022-02-28
আজ ১৩ই ফাল্গুন ১৪২৮/২৬শে ফেব্রুয়ারি ২০২২ শনিবার। অমর একুশে বইমেলার ১২তম দিন। মেলা চলে সকাল ১১:০০টা থেকে রাত ৯:০০টা পর্যন্ত। মেলায় ছিল আজ শিশুপ্রহর। আজ নতুন বই এসেছে ১১৯টি। আলোচনা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান : বিকাল ৪:০০টায় বইমেলার মূলমঞ্চে অনুষ্ঠিত হয় অমর একুশের সাহিত্য ও সংস্কৃতি শীর্ষক আলোচনা অনুষ্ঠান। প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন অধ্যাপক বিশ্বজিৎ ঘোষ। আলোচনায় অংশগ্রহণ করেন খালেদ হোসাইন, আহমাদ মোস্তফা কামাল এবং ফারহান ইশরাক। সভাপতিত্ব করেন মফিদুল হক।
 
প্রাবন্ধিক বলেন, একথা বলার অপেক্ষা রাখে না যে, আমাদের সংস্কৃতির অন্তভুর্বনে ভাষা আন্দোলনের মতো প্রভাবসঞ্চারী অনুষঙ্গ বিরল। ঊনিশশ বায়ান্ন সালে বাঙালি জাতির রক্তাক্ত উজ্জীবনের অব্যবহিত পরেই আমাদের সাহিত্যের বিভিন্ন শাখায় তার প্রতিফলন ঘটতে থাকে। ভাষা—আন্দোলনের মৌল চেতনা আমাদের লেখকদের সাহিত্যচর্চায় উদ্বুদ্ধ করেছে। বায়ান্ন—উত্তরকালে একুশের প্রতিরোধী চেতনাই হয়ে ওঠে বাংলাদেশের সাহিত্য—সংস্কৃতি রাজনীতির কেন্দ্রীয় প্রবণতা। তাই সাহিত্য ও সংস্কৃতিতে তার প্রতিফলন ছিল একান্তই স্বাভাবিক ও প্রত্যাশিত। 
 
আলোচকবৃন্দ বলেন, মহান ভাষা আন্দোলনের বৃহত্তর পটভূমিকে ভিত্তি করে রচিত হয়েছে নানা শিল্পসফল সাহিত্য ও গান। ভাষা আন্দোলনের প্রত্যক্ষ ফল হিসেবেই বাংলাদেশের সাহিত্যে অসাম্প্রদায়িকতা, গণতান্ত্রিক চেতনা, ভাষা সচেতনতা, স্বাধীনতার আকাক্সক্ষা, অন্যায়ের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ—বাসনার মতো প্রবণতার বিকাশ ঘটেছে। একুশের চেতনাই বুদ্ধিজীবী, কবি—সাহিত্য, লেখক, শিল্পী ও রাজনীতিবিদদের জাগিয়ে তুলেছিল যা আমাদের স্বাধীন—সার্বভৌম রাষ্ট্রগঠনের মূল প্রেরণা হিসেবে কাজ করছে। 
 
সভাপতির বক্তব্যে মফিদুল হক বলেন, শিল্পী—সাহিত্যিকরাই একুশের আন্দোলনকে মানুষের চিত্তে গেঁথে দিয়েছিল। আজো একুশের চেতনা নানা মাত্রায় নানাভাবে আমাদের অনুপ্রেরণা জুগিয়ে চলেছে। আমাদের রাষ্ট্রীয়, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক জীবনে একুশের তাৎপর্য গভীর অনুসন্ধানের দাবি রাখে।    
 
লেখক বলছি অনুষ্ঠানে নিজেদের বই নিয়ে আলোচনা করেন কবি খালেদ হোসাইন এবং কথাসাহিত্যিক পারভেজ হোসেন। 
আজকের অনুষ্ঠানে কবিতা পাঠ করেন কবি মিনার মনসুর, স্নিগ্ধা বাউল এবং রহমান শেলী। আবৃত্তি পরিবেশন করেন আবৃত্তিশিল্পী অঞ্চল চৌধুরী, মুজাহিদুল ইসলাম এবং মাসুদুজ্জামান। সাংস্কৃতিক পর্বে ছিল ‘কেন্দ্রীয় খেলাঘর আসর’, ‘উচ্চারক’ এবং ‘নৃত্যাঙ্গন’—এর শিল্পীদের পরিবেশনা। যন্ত্রাণুষঙ্গে ছিলেন সঞ্জয় কুমার দাস (তবলা)।   
 
আগামীকালের অনুষ্ঠান 
আগামীকাল ১৪ই ফাল্গুন ১৪২৮/২৭শে ফেব্রুয়ারি ২০২২ রবিবার অমর একুশে বইমেলার ১৩তম দিন। মেলা চলবে দুপুর ২:০০টা থেকে রাত ৯:০০টা পর্যন্ত।
আলোচনা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান : বিকাল ৪:০০টায় বইমেলার মূলমঞ্চে অনুষ্ঠিত হবে জন্মশতবার্ষিকী শ্রদ্ধাঞ্জলি : সত্যজিৎ রায় শীর্ষক আলোচনা অনুষ্ঠান। প্রবন্ধ উপস্থাপন করবেন মইনুদ্দীন খালেদ। আলোচনায় অংশগ্রহণ করবেন বিধান রিবেরু এবং মোস্তাক আহমাদ দীন। সভাপতিত্ব করবেন ম. হামিদ। 
সন্ধ্যায় রয়েছে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।  
 
মোহাম্মদ আকবর হোসেন  
উপপরিচালক (চলতি দায়িত্ব)

Share with :

Facebook Facebook